বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন, ১৪৩০, ১৭ শাবান, ১৪৪৫

করোনার টিকা নিতে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করুন: প্রধানমন্ত্রী

দেশবাসীকে করোনার টিকা নিতে উদ্বুদ্ধ করার জন্য আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেছেন, ‘টিকাদান কর্মসূচি শুরু হয়েছে। আনসার-ভিডিপির সদস্যদের অনুরোধ করব, প্রতিটি মানুষ যাতে এ টিকা নেয়, সেটা নিশ্চিত করতে হবে।’

বৃহস্পতিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর ৪১তম জাতীয় সমাবেশ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে এসব কথা বলেন তিনি। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গাজীপুরের সফিপুরে আনসার ও ভিডিপি একাডেমির অনুষ্ঠানে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘অনেকে ভয় পায়, সুই ফোটাতেও ভয় পায়। তারা যেন রোগাক্রান্ত না হন, সে ব্যাপারে আমরা পদক্ষেপ নিয়েছি। সেখানে আপনাদের সহযোগিতা চাই। আপনারাও গ্রামের মানুষকে উদ্বুদ্ধ করবেন, যেন এই মাহামারি, যেটা আজকে বিশ্বব্যাপী দেখা গেছে, তার হাত থেকে বাংলাদেশের মানুষ মুক্তি পেতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘টিকা দেওয়ার জন্য সরকার যেসব ডিজিটাল সেন্টার করেছে, সেখানে গিয়েই সবাই নিবন্ধন করতে পারবেন। সেখানে গিয়ে নিজে এবং পরিবারের সবাই যেন টিকা নেয়, তা নিশ্চিত করতে হবে।’

প্রধানমন্ত্রী জানান, করোনা মোকাবিলায় দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে এ পর্যন্ত আনসার বাহিনীর ১৯ সদস্য মারা গেছেন। তিনি তাদের আত্মার মাগফিরাত ও শান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা সুরক্ষিত থাকুন এবং টিকা নিয়ে নিজেদের আরও সুরক্ষিত রাখুন। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেন, সেটাও আমরা চাই।’

অনুষ্ঠানে মনোজ্ঞ কুচকাওয়াজ প্রদর্শনের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীকে রাষ্ট্রীয় সালাম জানানো হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন। আনসার ও ভিডিপির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম স্বাগত বক্তৃতা করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে ১৪০ জন আনসার ও ভিডিপি সদস্যকে সাহসিকতা ও বিশেষ কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ‘সেবা’ ও ‘সাহসিকতা’ পদক দেওয়া হয়।

বাল্যবিবাহ এবং মাদক-সন্ত্রাস রোধে আনসার সদস্যদের ভূমিকার প্রশংসা করে তা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।
তিনি বলেন, ‘একটি কাজ আপনারা করে যাচ্ছেন, সেটা হচ্ছে বাল্যবিবাহ রোধ করা। এটি আপনাদের করে যেতে হবে। মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদে যেন আমাদের দেশের যুবসমাজ সম্পৃক্ত না হয়, এ ব্যাপারে বিশেষ ভূমিকা আপনারা রেখে যাচ্ছেন এবং এটা অব্যাহত রাখা প্রয়োজন। এর বিরুদ্ধে সচেতনতামূলক তথ্য ও প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনসহ ব্যাপক কর্মসূচি আপনাদের পালন করে যেতে হবে। সেদিকে বিশেষভাবে দৃষ্টি দেওয়ার জন্য আমি অনুরোধ জানাচ্ছি।’
আনসার-ভিডিপি উন্নয়ন ব্যাংক দেশব্যাপী ২৫৯টি শাখার মাধ্যমে বাহিনীর সদস্যদের ক্ষুদ্র ও মাঝারি ঋণ দিয়ে জাতীয় অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে, উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘করোনা মোকাবিলায় বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে স্বল্প সুদে তহবিল সংগ্রহ করে বাহিনীর সদস্যদের মাঝে কৃষি ও ক্ষুদ্র ঋণ বিতরণের জন্য ইতোমধ্যে ৫০০ কোটি টাকা এ ব্যাংককে দেওয়া হয়েছে। তারা প্রায় ২৫০ কোটি টাকা খরচও করেছেন। এখান থেকে ৫ শতাংশ সুদে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ নিতে পারেন তারা।’