সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪, ৩১ আষাঢ়, ১৪৩১, ৮ মহর্‌রম, ১৪৪৬

সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজি, ৫ ব্যক্তিকে পুলিশে সোপর্দ

বরিশালের গৌরনদীতে চার দোকান মালিককে ভয়ভীতি দেখিয়ে সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগে ৫ ব্যাক্তিকে আটক করে থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছেন স্থানীয়রা।

বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের বাকাই বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

সাংবাদিক পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগে আটক ৫ ব্যাক্তি হলেন- মাদারীপুর জেলা সদরের দরগাহ শরীফ সড়ক এলাকার আলাউদ্দিন মাস্টারের ছেলে আব্দুল আল-মামুন (প্রতিদিনের সংবাদসহ স্বাধীন বাংলা পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার), দুতখালী এলাকার আব্দুল হক হাওলাদারের ছেলে আব্বাস হাওলাদার (দৈনিক গণকন্ঠ), নতুন মাদারীপুর এলাকার আজিজ মুন্সীর ছেলে লিখন মুন্সী (দৈনিক আমার বার্তা), চরমুগুরিয়া গ্রামের মৃত শাহ্জাহান তালুকদারের ছেলে  নাসিরউদ্দিন তালুকদার (দৈনিক আলোকিত প্রতিদিনের স্টাফ রিপোর্টার), ঝিকরহাটি এলাকর মৃত আব্দুল মোতালেব শেখের ছেলে এমদাদুল হক শেখ (দৈনিক খবরের আলো)।

এ ব্যাপারে ওই বাজারের ভুক্তভোগী মিষ্টির দোকানদার ও মাদারীপুর জেলার ডাসার থানার পূর্ব মাইজপাড়া গ্রামের মৃত আবুল কালাম মাতুব্বরের ছেলে নাহিদ হাছান বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামি করে বৃহস্পতিবার রাতে গৌরনদী থানায় একটি চাঁদাবাজির মামলা করেন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, গত ১ বছর আগে আসামিরা আমার দোকানে এসে দোকানের বিভিন্ন ধরনের ছবি তুলে আমাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে আমার কাছ থেকে ১২শ টাকা নিয়ে যায়।

গত ২৩ মার্চ বিকাল ৪টার দিকে ওই আসামিরা বাকাই বাজারে এসে আমাদের অনুমতি ব্যতিরেকে আমার দোকানসহ সাক্ষী মিলন বাড়ৈ ও তাকিফের দোকানের ছবি তুলতে থাকে।
আমিসহ সাক্ষী মিলন বাড়ৈ ও তাকিফের দোকানের ছবি তোলার কারণ জিজ্ঞাসা করলে আসামিরা নিজেদের সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বলেন- “আপনাদের দোকান অপরিষ্কার। মোবাইলে ধারণকৃত এ ছবি পত্রিকাসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করা হলে আপনাদের ব্যবসার ক্ষতিসাধন হবে”- এসব বলে ভয়ভীতি প্রদর্শন করেন।

এ সময় আমাদের প্রত্যেক দোকানদারের কাছে দুই হাজার টাকা (মোট ৬ হাজার টাকা) দাবি করেন আসামিরা। এছাড়া আসামিরা সাক্ষী তরুলক্ষ নাথ নাগের কাছে নিজেদের পানি উন্নয়ন বোর্ডের সদস্য পরিচয় দিয়ে বাকাই বাজারের তার (তরুলক্ষ) দোকানসহ বাড়ির কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে সঠিক নয় বলে জানায়।

তখন তরুলক্ষ নাথের কাছে আসামিরা ৫ হাজার টাকা দাবি করে। আমাদের সন্দেহ হলে আসামিদের কৌশলে দোকানের ভেতর বসিয়ে রেখে বিষয়টি থানা পুলিশকে জানাই। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে স্থানীয়রা অভিযুক্তদের পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন।

গৌরনদী থানার ওসি আফজাল হোসেন বলেন, ওই বাজারের ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়ে বৃহস্পতিবার রাতেই চাঁদাবাজির মামলা করা হয়েছে।

আটক ওই ৫ জনকে গ্রেফতার দেখিয়ে শুক্রবার দুপুরে বরিশাল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হলে আদালতের বিচারক তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।