সোমবার, ১৫ জুলাই, ২০২৪, ৩১ আষাঢ়, ১৪৩১, ৮ মহর্‌রম, ১৪৪৬

নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রথম অস্ত্রোপচার, নবজাতকের জন্ম

 

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স প্রতিষ্ঠার ৫৮ বছর পর প্রথমবারের মতো সেখানে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে এক নবজাতকের জন্ম হয়েছে। গতকাল রোববার দুপুরে ইমা আক্তার নামের এক প্রসূতি সরকারি এই হাসপাতালে পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। এমন খবরে হাসপাতালে কর্মরত চিকিৎসক, কর্মকর্তা-কর্মচারী থেকে শুরু করে স্থানীয় বাসিন্দারা মিষ্টি বিতরণ করেছেন।

স্থানীয় ব্যক্তিরা জানান, নড়িয়া উপজেলা সদর থেকে পাঁচ কিলোমিটার দূরত্বে পদ্মা নদীর তীরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি অবস্থিত। ৫৮ বছর আগে ১৯৬৫ সালে এখানে চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু হয়। তবে এখানে কোনো অপারেশন থিয়েটার ছিল না। স্থানীয় সংসদ সদস্য ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীমের উদ্যোগে হাসপাতালে একটি অপারেশন থিয়েটার স্থাপন করা হয়। গত ১৭ এপ্রিল অপারেশন থিয়েটারটি উদ্বোধনের পর গতকাল রোববার সেখানে করা প্রথম অস্ত্রোপচার সফল হয়।

নড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কামরুল জমাদ্দার শরীয়তপুর চোখকে বলেন, ‘স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রথম অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে একটি শিশুর জন্ম হয়েছে। এটা আমাদের জন্য অনেক আনন্দের বিষয় ছিল। নবজাতক ও তার মা চিকিৎসকদের সেবাশুশ্রূষায় সুস্থ আছেন।’

স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিতে অ্যানেসথেসিয়া ও সার্জারির কোনো কনসালট্যান্ট নেই বলে জানান কামরুল জমাদ্দার। তিনি বলেন, এই দুটি বিভাগে কনসালট্যান্ট পদায়ন করার জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করা হয়েছে। দুজন কনসালট্যান্ট এলে অপারেশন থিয়েটারের শতভাগ সেবা নড়িয়া উপজেলার মানুষ পাবেন।

গতকাল রোববার সন্তান প্রসবের জন্য নড়িয়া উপজেলার লোনসিং গ্রামের ইমা আক্তারকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন স্বজনেরা। দুপুরে হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগের কনসালট্যান্ট শেখ ফারহানা হুদা অন্য চিকিৎসকদের নিয়ে ওই প্রসূতির অস্ত্রোপচার করেন। বেলা তিনটার দিকে ইমা আক্তার পুত্রসন্তানের জন্ম দেন।

ইমা আক্তারের স্বামী শিপন ব্যাপারী শরীয়তপুর চোখকে বলেন, ‘হাসপাতালটির অপারেশন থিয়েটারে প্রথম আমাদের সন্তান জন্ম নিয়েছে। সন্তান ও তার মা চিকিৎসকদের চেষ্টা ও আল্লাহর রহমতে সুস্থ আছে। এ জন্য আমি সবার প্রতি কৃতজ্ঞ। এ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সিজারিয়ান করার ব্যবস্থা না থাকলে আমাকে জেলা সদরে যেতে হতো। অথবা কোনো বেসরকারি ক্লিনিকের ওপর নির্ভর করতে হতো।’

এ বিষয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম শরীয়তপুর চোখকে বলেন, ‘৫৮ বছরের পুরোনো একটি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অপারেশন থিয়েটার নেই, এমন তথ্য শুনে অবাক হই। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করে তা স্থাপনের উদ্যোগ নেওয়া হয়। অপারেশন থিয়েটারে প্রথম শিশু জন্ম নেওয়ার খবর পেয়ে আনন্দিত হয়েছি। নড়িয়ার মানুষের চিকিৎসাসেবায় নতুন এক অধ্যায়ের সূচনা হলো। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শূন্য পদগুলোতে কয়েকজন চিকিৎসক আনা হয়েছে। বাকি পদগুলোতেও দ্রুত সময়ে চিকিৎসক পদায়নের উদ্যোগ নেওয়া হবে।’