বুধবার, ২৯ মে, ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১, ২০ জিলকদ, ১৪৪৫

শরীয়তপুরে অবৈধ ড্রেজারের পাইপে বাইকের ধাক্কায় প্রবাসীর মৃত্যুর অভিযোগ

 

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলায় ডোবা থেকে দুই দিন ধরে নিখোঁজ এক মালয়েশিয়া প্রবাসীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। সড়কে বসানো অবৈধ ড্রেজারের পাইপে ধাক্কা খেয়ে তিনি মোটরসাইকেলসহ ডোবায় পড়েন বলে ধারণা পুলিশের।

জাজিরা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সুজন হক জানান, সোমবার সন্ধ্যায় উপজেলার পালেরচর ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন সেফ জাহানারা বাশার ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের সঙ্গে থাকা একটি ব্রিজের নিচের ডোবা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়েছে। 

সন্ধ্যায় মরদেহটি ভেসে উঠার পর স্থানীয়রা ইউপি চেয়ারম্যানকে জানালে তিনি পুলিশে খবর দেন। 

নিহত মো. জামাল মীর (৪০) পালেরচরের খালেক মীরের কান্দি এলাকার আব্দুল খালেক মীরের ছেলে। দুই সপ্তাহ আগে জামাল মালয়েশিয়া থেকে দেশে ফিরেছিলেন।

নিহতের মামাতো ভাই আ. জলিল মোল্লা জানান, শনিবার বিকালে একটি মোটরসাইকেল নিয়ে আত্মীয়ের বাড়িতে যাওয়ার জন্য বের হয়েছিলেন জামাল। সন্ধ্যা পর্যন্ত তার সঙ্গে স্ত্রীসহ বিভিন্নজনের ফোনে কথা হয়।

“এরপর থেকে তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না এবং তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়। পরে সোমবার বিকালে জাজিরা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন আরেক মামাতো ভাই মো. খলিল মোল্লা।”

পুলিশ পরিদর্শক সুজন হক জানান, লাশ পাওয়ার স্থানের পাশেই সড়কের ওপর একটি ড্রেজার পাইপের স্পিডব্রেকার দেওয়া ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, সেটিতে ধাক্কা লেগে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পাশে থাকা একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায় জামালের মোটরসাইকেলটি। পরে মোটরসাইকেলসহ তিনি পানিতে পড়ে যান।

গাছে এবং রাস্তার বিভিন্ন জায়গায় গাড়ি ধাক্কা লাগার চিহ্নও পাওয়া গেছে বলে জানান পরিদর্শক সুজন। এ ছাড়া মোটরসাইকেলটিও সামনের অংশ দুমড়েমুচড়ে ভেঙ্গে যাওয়া অবস্থায় পানির নিচ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে স্থানীয়রা জানান, আবু কালাম চৌকিদার নামে এক ব্যক্তির ড্রেজার মেশিনটি যুবলীগ নেতা সোহেল দড়ি আরও কয়েকজনের সঙ্গে ভাড়ায় এনে পালেরচর এলাকার পদ্মা নদীতে বসিয়ে সেখান থেকে বালু বিক্রি করছিলেন।

তবে জাজিরা উপজেলা যুবলীগের সদস্য সোহেল দড়িকে মোবাইলে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি ড্রেজার মেশিন চালানোয় সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি অস্বীকার করেন।

পালেরচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবুল হোসেন ফরাজি বলেন, “এই ড্রেজার পাইপটির কারণে একটা লোকের জীবনই চলে গেল। ড্রেজার পাইপটি এখানে অবৈধভাবে না বসানো হলে হয়ত লোকটি আজ মারা যেত না “

তিনি অভিযোগ করেন, ড্রেজার মেশিন এবং ড্রেজার পাইপটি রাস্তার উপরে বসানোর সময় তিনি বহুবার নিষেধ করা সত্ত্বেও জড়িতরা তা শোনেনি। এমনকি বিভিন্ন জায়গা থেকে তাকে ফোন দিয়ে ড্রেজার চালাতে দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে।

পুলিশ পরিদর্শক সুজন বলেন, পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে থানায় এবং মঙ্গলবার তা ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে।

“প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি, ড্রেজার পাইপের সাথে ধাক্কা লেগে নিয়ন্ত্রণ হারিয়েই হয়তো জামাল মীর দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।”

এ ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।