বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন, ১৪৩০, ১৭ শাবান, ১৪৪৫

শরীয়তপুরে শিশু হত্যার দায়ে একজনের যাবজ্জীবন

শরীয়তপুরে শিশুকে শ্বাসরোধে হত্যার দায়ে একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

রোববার দুপুরে শরীয়তপুর জ্যেষ্ঠ জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান আসামির উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা দেন বলে জানান সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) মীর্জা হজরত আলী।

দণ্ডিত মিজানুর রহমান মিজান ওরফে বাঘা গোসাইরহাট উপজেলার পূর্ব লাকাচুয়া গ্রামের বাসিন্দা।

মামলার বরাত দিয়ে পিপি মীর্জা হজরত আলী বলেন, ২০১৬ সালের ৪ অগাস্ট লাকাচুয়া গ্রামের মানিক সরদারের ১২ বছর বয়সি মেয়ে সাহিদা আকতার নিপা বাড়ির পাশে বড় বোনের বাড়িতে দুধ আনতে যায়।

“পথে ওই গ্রামের আব্দুল আজিজের মেয়েজামাই মিজানুর রহমান মিজান ওরফে বাঘার সঙ্গে দেখা হয় নিপার। দূর সম্পর্কের আত্মীয় সুবাদে নিপাকে কেক কিনে দেন মিজান।এরপর তিনি বেড়াতে নেওয়ার কথা বলে কৌশলে লাকাচুয়া ব্রিজ থেকে কিছুদূরে নিয়ে গিয়ে নিপাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পাশের একটি খালে নিপাকে ফেলে দেন তিনি।

“এ সময় ওই দিক দিয়ে স্থানীয় কয়েকজন মাছ ধরার জন্য যাচ্ছিলেন। মিজান তাদেরকে সাপ ও ভিমরুলের ভয় দেখিয়ে ওইদিকে যেতে মানা করেন। কিন্তু তার কথা না শুনে তারা ওই রাস্তায় গিয়ে নিপার মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে। তারা নিপার বাড়িতে খবর দেয়। নিপার বাবা এসে মেয়ের মরদেহ দেখে থানায় খবর দেয়।

“পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় নিহতের বাবা গোসাইরহাট থানায় হত্যা মামলা করেন। এরপর মিজান বাঘাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

আইনজীবী বলেন, আসামি মিজান আদালতে জবানবন্দি দেন। ১৪ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে রোববার আদালত রায় দেয়।

রায়ে আদালত আসামি মিজানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ১০ হজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দেয় বলে জানান রাষ্ট্রপক্ষের এই আইনজীবী।