বুধবার, ২৯ মে, ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১, ২০ জিলকদ, ১৪৪৫

গোসাইরহাটে এলাকাবাসীর দুর্ভোগ ব্রিজের কাজ ফেলে উধাও ঠিকাদার

 

শরীয়তপুরের গোসাইরহাট উপজেলার নলমূড়ি ইউনিয়নের কালাম দেওয়ান বাজারের ভুয়াই নামক স্থানে নির্মাণাধীন পিএসসি গার্ডার ব্রিজের কাজ এক বছরে শেষ হওয়ার কথা থাকলেও তা দুই বছরেও শেষ হয়নি। দুই কোটি ৭৪ লাখ ৯৪ হাজার ৯২০ টাকা ব্যয়ে ১৬ মিটার দৈর্ঘ্যরে পিএসসি গার্ডার ব্রিজের নির্মাণ কাজ করছে শরীয়তপুরের নোনা এন্টারপ্রাইজ নামক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। জানা গেছে, ২০২১ সালের জুন মাসের ১৬ তারিখে কাজটি শুরু হয়ে ২০২২ সালের ১৭ মে মাসে শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ঠিকদারি প্রতিষ্ঠান ৫-৬ মাস কাজ করে উধাও হয়ে যায়। এদিকে দুই বছরের অধিক সময় ধরে ব্রিজের দু’পাশে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছেন অন্তত ১৫-১৬টি গ্রামের মানুষ। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) কাগজপত্রে ২৫ ভাগ কাজ সম্পন্ন দেখালেও বাস্তবে মাত্র কয়েক অংশ পিলার, পাইলিং হয়েছে। স্থানীয় বাজার ব্যবসায়ী মানিক ও মাসুদ বলেন, দু’পাশে পাকা সড়ক থাকলে কোনো মালামাল পরিবহণ করা যাচ্ছে না। হাটবাজারগুলোতে আসতে মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই। ৩০নং চরমনপুরার সহকারী শিক্ষক মেহেদি হাসানসহ কয়েকজন শিক্ষক বলেন, ব্রিজটি সম্পন্ন না হওয়ায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন থাকায় স্থানীয় স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসাগামী শিক্ষার্থীরা সময়মতো বিদ্যালয়ে আসতে পারছে না। ইউপির চেয়ারম্যান মাহফুজুর রহমান মিঞা বলেন, বিকল্প সড়কে অনেক ঘুরতে হয়। বৃদ্ধ মানুষের কষ্টের সীমা থাকে না। তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দ্রুত ব্রিজটি নির্মাণের দাবি জানান। ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স নোনা ট্রেডাসের আবু সুফিয়ান বলেন, ডিজাইন পরিবর্তনের কারণে কাজটি আর করতে পারিনি। ঢাকা ডিভিশন অফিসে ডিজাইন পরিবর্তন করে দিলে আমি আবার কাজ শুরু করতে পারব। উপজেলা প্রকৌশলী সজল কুমার দত্ত জানান, বক্স কালভার্ট ব্রিজটির ডিজাইন পরিবর্তনের জন্য সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কতৃপক্ষ বরাবর চিঠি পাঠানো হয়েছে। এখনও অনুমোদন হয়নি। এলে পুনরায় কাজ শুরু করা যাবে।