বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১৫ ফাল্গুন, ১৪৩০, ১৭ শাবান, ১৪৪৫

ভোটে এবারও জোট: আওয়ামী লীগ

২০০৮ সাল থেকেই জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচন করছে আওয়ামী লীগ। এবার কারা জোট থাকবেন সে বিষয়ে নির্বাচন কমিশনকে কিছু জানায়নি দলটি।

গত তিনটি জাতীয় নির্বাচনের মতো দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনেও জোটবদ্ধ হয়ে লড়াই করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

শনিবার নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ।

তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ বলেছে, তারা জোটবদ্ধভাবে নৌকা প্রতীক নিয়ে সংসদ নির্বাচন করবে। আর সভাপতির স্বাক্ষরে তারা নমিনেশন দেবে।”

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে অশোক বলেন, “কোন কোন দল তাদের (আওয়ামী লীগের) সঙ্গে থাকবে এটা বলা নেই চিঠিতে।”

আগামী ৭ জানুয়ারি ভোটের তারিখ দিয়ে যে তফসিল ঘোষণা হয়েছে তাতে অংশগ্রহণকারী দলগুলো জোটবদ্ধ হয়ে লড়তে চাইলে শনিবারের মধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে জানাতে হবে।

নির্ধারিত সময়ের মধ্যে মোট সাতটি দলের পক্ষ থেকে জোটবদ্ধ হওয়ার কথা জানিয়ে চিঠি পাওয়ার কথা জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন। এর মধ্যে ছয়টিই গত নির্বাচনে মহাজোট নামে জোট গঠন করে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে মোকাবিলা করেছিল।

আওয়ামী লীগ ছাড়া অন্য দলগুলো হলো জাতীয় পার্টি, জাতীয় পার্টি-জেপি, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল ও বাংলাদেশের ওয়াকার্স পার্টি।

নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের ব্রিফ করছেন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ

এসব দলের মধ্যে সাম্যবাদী দল, ওয়ার্কার্স পার্টি ও গণতন্ত্রী পার্টি নৌকা প্রতীকে ভোট করার কথা জানিয়েছে।

আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মহাজোট করার বিষয়ে জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে যে চিঠিটি এসেছে, সেটি দিয়েছেন দলের পৃষ্ঠপোষক ও জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ। দলের মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু যে চিঠি দিয়েছেন, তাতে আবার বলা হয়েছে, জাতীয় পার্টির মনোনয়ন দেবেন চেয়ারম্যান জি এম কাদের। জোটবদ্ধ নির্বাচনের বিষয়ে কোনো কিছুর উল্লেখ নেই তাতে।

দুটো চিঠির মধ্যে কোন চিঠিটি আমলে নেওয়া হবে, এই প্রশ্নে নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব বলেন, “এটা কমিশন দেখবে।”

দলের সাইনিং অথরিটি (সই করার ক্ষমতা) কার- এই প্রশ্নে তিনি বলেন, “নরমালি দলের চেয়ারম্যান, সাধারণ সম্পাদক বা মহাসচিব সাইনিং অথরিটি হয়। (জাপার বিষয়টি এখন) এটা কমিশনকে বলতে হবে।”

আওয়ামী লীগের শরিক বা সাবেক জোটের শরিক ছাড়া অন্য যে দলটি জোটবদ্ধ হওয়ার কথা বলেছে, সেটি হলো তৃণমূল বিএনপি। বিএনপির সাবেক নেতারা দলটি গড়ে তুলেছেন।