বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১, ৬ জিলহজ, ১৪৪৫

বিএনপি ভোটে আসতে চাইলে ৩০ নভেম্বরের আগে জানাতে হবে’

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে চাইলে বিএনপিকে ৩০ নভেম্বরের আগে কমিশনকে জানাতে হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর।

তিনি বলেছেন, “নির্বাচনে অংশ নিতে বিএনপিকে একাধিকবার বলা হয়েছে। এরপরও তারা যদি মনে করে নির্বাচনে আসবে তাহলে ৩০ নভেম্বরের আগে আমাদেরকে বলতে হবে।”

মঙ্গলবার শরীয়তপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে রিটার্নিং কর্মকর্তা, সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

নির্বাচনের তারিখ পেছানো প্রসঙ্গে ইসি আলমগীর বলেন, “আমরা নির্বাচনের তারিখ পেছাব না; যেটা ঘোষণা করা হয়েছে, সেটাই ঠিক থাকবে। তবে বিএনপি নির্বাচনে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করলে আমরা বিবেচনা করব।

“সেক্ষেত্রে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের পাশাপাশি মনোনয়নপত্র দাখিলের তারিখও পরিবর্তন হতে পারে। তবে সেটা সংবিধানের মধ্যে থেকেই করতে হবে।”

সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে নির্বাচন আয়োজন করার কথা জানিয়ে ইসি আরও বলেন, “ভোটের দিন জনগণ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে; যাকে খুশি তাকে ভোট দেবে।

“এ ছাড়া যারা প্রার্থী হিসাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন তাদের প্রতি আহ্বান থাকবে সমর্থক ও ভোটাররা যাতে কেন্দ্রে এসে ভোট দেয়। সে ব্যাপারে তারা ভোটারদের উৎসাহিত করবেন।”

ভোটের দিন কেউ যাতে কোনোভাবেই ভোটারকে তার অমতের বিরুদ্ধে ভোট দিতে বাধ্য না করে সে ব্যাপারে কমিশন থেকে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা, পুলিশ সুপারসহ বিভিন্ন কর্মকর্তাদের সতর্ক করা হয়েছে বলে জানান ইসি।

নির্বাচন নিয়ে কমিশনের ওপর দেশি-বিদেশি কোনো চাপ নেই উল্লেখ করে আলমগীর বলেন, “বিদেশিরা শুধু নির্বাচনের প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। অন্য কিছু না। তারাও আশা করেন, বাংলাদেশে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন হউক।”

ভোটের দিন দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষকরা সংবিধান অনুযায়ী তাদের দায়িত্ব পালন করবেন বলে জানান ইসি।

এর আগে সভায় শরীয়তপুর জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন আহাম্মেদ, পুলিশ সুপার মো. মাহবুবুল আলম, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুল মান্নানসহ জেলার বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।