বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন, ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১, ৬ জিলহজ, ১৪৪৫

শরীয়তপুর-২ আসনে প্রার্থিতা ফিরে পেলেন খালেদ শওকত আলী

এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পর ওই আসনে নির্বাচনি আমেজ ফিরে এসেছে; উৎসাহ উদ্দীপনা বেড়েছে ভোটারদের মাঝে।

শরীয়তপুর-২ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী খালেদ শওকত আলী।

নির্বাচন কমিশনের শুনানিতে আপিলে জিতে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন শরীয়তপুর-১ আসনে গোলাম মোস্তফা ও শরীয়তপুর-২ আসনে খালেদ শওকত আলী।

রোববার বিকালে নির্বাচন কমিশনের আপিল বিভাগে এই দুই স্বতন্ত্র প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়।

এ খবর ছড়িয়ে পড়ার পর শরীয়তপুর-১ (নড়িয়া-সখিপুরে) ও শরীয়তপুর-২ (পালং-জাজিরায়) নির্বাচনি আমেজ ফিরে এসেছে; উৎসাহ উদ্দীপনা বেড়েছে ভোটারদের মাঝে।

সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে গেলে নির্বাচনি এলাকার ১ শতাংশ ভোটারদের সমর্থনমূলক স্বাক্ষর তালিকা জমা দিতে হয়। তালিকায় ভোটারের স্বাক্ষর ত্রুটিপূর্ণ থাকায় গত ৩ ডিসেম্বর শরীয়তপুরের জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন আহাম্মেদ গোলাম মোস্তফা ও খালেদ শওকতের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন।

মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা হওয়ার পর খালেদ শওকত সাংবাদিকদের বলেন, “মনোনয়নপত্র দাখিলের দিন আমার গাড়িতে বোমা হামলা হয়েছিলো। আমার সমর্থকদের ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের দিয়ে জোর করে বলানো হয়েছিল যে, তারা আমার সমর্থনে সই করেননি।

“নির্বাচন কমিশন সঠিক রায় দিয়ে আমার প্রার্থিতা বৈধ ঘোষণা করায় আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করেছি। এখন থেকেই নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিয়েছি। বিজয়ের মাসে এই বিজয় অব্যাহত থাকবে।“

শরীয়তপুর-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম মোস্তফা।

শরীয়তপুর-২ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য এ কে এম এনামুল হক শামীম। তিনি এবারও নৌকার মনোনয়ন পেয়েছেন। অন্যদিকে খালেদ শওকত আলী এ আসন থেকে নৌকার মনোনয়ন নো পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন।

প্রার্থীতা ফিরে পাওয়ার বিষয়ে শরীয়তপুর-১ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম মোস্তফা বলেন, “নির্বাচন করবো। আশা করি জয়ী হবো।”