শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪, ১০ ফাল্গুন, ১৪৩০, ১২ শাবান, ১৪৪৫

তিন দিনে দুই শতাধিক পাখি হত্যা

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় গম খাওয়ার অপরাধে বিষ প্রয়োগ করে দুই শতাধিক ঘুঘু পাখি মেরে ফেলার অভিযোগ উঠেছে শাহজাহান মাদবর নামের সাবেক এক ইউপি সদস্যের (মেম্বার) বিরুদ্ধে। পাখিগুলোকে মেরেই ক্ষান্ত হননি তিনি, সুতায় বেঁধে ঝুলিয়ে রাখেন ওই জমিতেই।

খবর পেয়ে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে জমির মালিককে দুই হাজার টাকা জরিমানা করেছেন। গত শুক্রবার উপজেলার সিড্যা ইউনিয়নের মধ্য সিড্যা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। কৃষক শাহজাহান মাদবর সিড্যা ইউনিয়ন পরিষদের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক সদস্য।

উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সিড্যা ইউনিয়নের মধ্য সিড্যা এলাকার শাহজাহান মাদবর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের রবিশস্যের ব্লক প্রদর্শনীতে ৩৫ শতাংশ জমিতে গমের আবাদ করেন। এগুলো দিয়ে গমের বীজ উৎপাদন করার কথা। ওই জমিতে নানা প্রজাতির পাখি এসে গম খেয়ে ফেলছিল এবং নষ্ট করছিল। তখন শাহজাহান ওই জমিতে খাবারের সঙ্গে বিষ প্রয়োগ করেন, যা খেয়ে ঘুঘু পাখি মারা যায়। গত তিন দিনে ওই জমির খাবার খেয়ে দুই শতাধিক পাখি মারা গেছে। সেখান থেকে ৮-১০টি মরা ঘুঘু ওই জমিতেই রশি দিয়ে বেঁধে ঝুলিয়ে রাখা হয়। বাকি মৃত পাখিগুলো জমিতে মাটিচাপা দেওয়া হয়।

খবর পেয়ে ডামুড্যার সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুজন দাশগুপ্ত ও থানার ওসি এমারত হোসেন ওই এলাকায় যান। অভিযুক্ত কৃষক শাহজাহানকে আটক করা হয়েছে। প্রশাসনের কর্মকর্তাদের যাওয়ার খবর পেয়ে জমি থেকে মৃত ঘুঘু পাখিগুলো সরিয়ে ফেলা হয়। সহকারী কমিশনার ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে ওই কৃষককে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইনে দুই হাজার টাকা জরিমানা করেন। এর সঙ্গে ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ করবেন না মর্মে মুচলেকা নেওয়া হয়।

কৃষক শাহজাহান জমিতে বিষ প্রয়োগের কথা অস্বীকার করে দাবি করেন, কিছু ঘুঘু আমার জমিতে মরে পড়ে ছিল। কিছু মৃতদেহ মাটিতে পুঁতে রাখি। অন্য পাখিরা যাতে গমের বীজ নষ্ট না করে, সেজন্য কয়েকটি মৃত পাখি ঝুলিয়ে রেখেছিলাম। পরে বুঝেছি কাজটি ঠিক হয়নি।