শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৪, ৭ বৈশাখ, ১৪৩১, ১০ শাওয়াল, ১৪৪৫

জেলের জালে উঠে এলো যুবকের লাশ

শরীয়তপুরের জাজিরায় জেলের জালে ভেসে উঠল জামাল শিকারী (২৬) নামে এক দিনমজুরের লাশ। রোববার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার বড়কান্দি ইউনিয়নের কীর্তিনাশা নদীতে একদল ভাসমান জেলে তাদের জালে লাশটি দেখতে পেয়ে পুলিশকে অবহিত করেন।

জামাল শিকারী নড়িয়ার ডগ্রী এলাকার মৃত রতন শিকারীর ছেলে। তিনি পেশায় দিনমজুর ছিলেন।

জানা যায়, বাবা-মা মারা যাবার পরে জামাল শিকারী একেক সময় একেক জায়গায় থাকতেন। তবে দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে তিনি কাজিরহাটের ডুবিসায়বর এলাকায় কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। অধিকাংশ সময় বাড়ির বাইরে থাকতেন বলে জানা যায়।
রোববার দুপুর ২টার দিকে জেলেরা কাজিরহাট কীর্তিনাশা নদীতে মাছ ধরার জন্য জাল ফেললে হঠাৎ তাদের জালে জামাল শিকারীর লাশ ভেসে উঠে। বিষয়টি নৌ-পুলিশকে অবহিত করলে তারা ঘটনাস্থলে এসে লাশটি উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করে।

জামাল শিকারীর ভাই কামাল শিকারী বলেন, আমার ভাই জামাল শিকারীর মরদেহ পাওয়া গেছে। তাকে হত্যা করে পানিতে ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছে। আমার ভাইকে যারা হত্যা করেছে, তাদের খুঁজে বের করে শাস্তির দাবি জানাই।

নিহত জামাল শিকারীর ভাবি করিমন বেগম বলেন, শনিবার রাতেও আমার দেবর বাড়িতে এসে ভাত খেয়ে গেছে। আমি রাত ৯টার দিকে শুনেছি তার সঙ্গে কারো মারামারি হয়েছে। আমি সেখানে গিয়ে তাকে খোঁজাখুঁজি করেও পাইনি। তখন থেকেই জামাল নিখোঁজ ছিলেন। আমার দেবরকে কেউ মেরে নদীতে ফেলে গেছে। আমি পুলিশের কাছে দাবি করছি এ ঘটনায় দোষীদের খুঁজে শাস্তি দেওয়া হোক।

মাঝিরঘাট নৌ-পুলিশের পরিদর্শক মো. জসিম উদ্দিন বলেন, কাজীরহাট এলাকার নদীতে একজনের মরদেহ ভেসে এসেছে। মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। কেউ অভিযোগ করলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।