শনিবার, ২০ এপ্রিল, ২০২৪, ৭ বৈশাখ, ১৪৩১, ১০ শাওয়াল, ১৪৪৫

শরীয়তপুরে নদীতে ভাসছিল যুবকের মরদেহ

শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার ডুবিসায়বর বন্দর কাজীরহাট এলাকার নতুন ব্রিজ সংলগ্ন পদ্মার শাখা নদী থেকে জামাল শিকারী (২২) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার (৩ মার্চ) দুপুরে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। নিহত জামাল শিকারী কাজীরহাট এলাকার রতন শিকারী ও লালমতি বেগমের ছেলে। স্বজনদের দাবি জামালকে হত্যা করা হয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, জামাল শিকারীর মা-বাবা ছোটবেলায় মারা গেছেন। পেশায় নছিমনচালক জামাল শিকারী বিয়ে করেননি। তিনি ভবঘুরে প্রকৃতির ছিলেন। অধিকাংশ সময় বাড়ির বাইরে থাকতেন। আজ দুপুর ২টার দিকে কাজীরহাট এলাকার নতুন ব্রিজ সংলগ্ন পদ্মার শাখা নদীতে একটি মরদেহ ভেসে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। মরদেহ ভেসে এসেছে এমন খবরে আশপাশের লোকজন ভিড় করলে মরদেহটি জামালের বলে চিহ্নিত করেন তার স্বজনরা। বিষয়টি নৌ পুলিশকে জানালে তারা এসে মরদেহটি উদ্ধার করে।

নিহত জামাল শিকারীর বড় ভাই বাচ্চু শিকারী বলেন, আমার ভাই জামাল ভবঘুরে প্রকৃতির ছিল। তাকে হত্যা করে পানিতে ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছে। আমার ভাইকে যারা হত্যা করেছে, তাদের খুঁজে বের করে শাস্তির দাবি জানাই।

এদিকে এ ঘটনায় বাবুল ব্যাপারী (২৫) নামে সন্দেহভাজন একজনকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা। বাবুল ব্যাপারী পূর্বনাওডোবা ইউনিয়নের মঙ্গলখার কান্দি গ্রামের জলিল ব্যাপারীর ছেলে।

মাঝিরঘাট নৌ পুলিশের পরিদর্শক মো. জসিম উদ্দিন বলেন, কাজীরহাট এলাকার নদীতে একজনের মরদেহ ভেসে এসেছে। এ ঘটনায় বাবুল ব্যাপারী নামের একজনকে আটক করে স্থানীয়রা পুলিশে দিয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।