বুধবার, ২৯ মে, ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১, ২০ জিলকদ, ১৪৪৫

চাকরি হারানো কর্মীদের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন গুগল

 

বিশ্বজুড়ে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানে চলছে ছাঁটাই। ইতোমধ্যে চাকরি হারিয়েছেন হাজার হাজার কর্মী। ফেসবুক, মেটা, অ্যামাজন থেকে শুরু করে গুগলে পর্যন্ত ছাঁটাই চলছে। সম্প্রতি গুগল ঘোষণা দেয় প্রতিষ্ঠানটির ১২ হাজার কর্মী ছাঁটাই করার।

গুগলের মূল প্রতিষ্ঠান অ্যালফাবেট ইনকরপোরেশনের সিইও সুন্দর পিচাইয়ের পক্ষে কর্মীদের ই-মেইল মারফত ছাঁটাইয়ের কথা জানানো হয়েছে। ছাঁটাইয়ের সব দায়ও নিজের কাঁধেই নিয়েছেন তিনি।

এত বিশাল সংখ্যক কর্মী ছাঁটাইয়ে কার্যত স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছে পুরো বিশ্ব। ফেসবুক, লিংকডইনের মতো সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন বহু বরখাস্ত হওয়া কর্মীই। চার দিন হয়ে গেছে ছাঁটাই পর্বের।

এত দিন এ বিষয়ে গুগলের পক্ষ থেকে কোনো বিবৃতি মেলেনি। অবশেষে ছাঁটাইয়ের বিষয়ে মুখ খুলল গুগল। সম্প্রতি একটি মিটিংয়ে বিষয়টি নিয়ে কথা বললেন গুগলের উচ্চপদস্থ কর্তারা। তাদের দাবি, যথেষ্ট চিন্তাভাবনা করেই এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। হঠাৎ করে কিছুই হয়নি।

গুগল কর্তাদের এ বক্তব্যের পর স্বাভাবিকভাবেই ক্ষোভ বেড়েছে বরখাস্ত হওয়া কর্মীদের। বৈঠকে অনেক প্রশ্নের উত্তরেই নীরবতার পথ বেছে নিয়েছিলেন কর্তাব্যক্তিরা। যদিও সুন্দর পিচাই জানান, তিনি বুঝতে পারছেন, বরখাস্ত হওয়া কর্মীরা তাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন। এত গুণী কর্মীদের হারিয়ে একই রকম দুঃখিত গুগলও। তবে সেসব কর্মীর ক্ষতিপূরণ হিসাবে বোনাসের একটি অংশ দেওয়ার কথাও ঘোষণা করেছেন পিচাই। সিনিয়রিটির ওপরও কিছুটা নির্ভর করবে বোনাসের পরিমাণ।