বুধবার, ২৯ মে, ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১, ২০ জিলকদ, ১৪৪৫

সেহেরি খেয়ে ঘুমাতে গেলেন, বিকেলে মিলল মরদেহ

 

পরিবারের সবার সঙ্গে সেহেরি খেয়ে ঘুমাতে গিয়েছিলেন কলেজ শিক্ষার্থী মিথিলা আক্তার (১৯)। পরে সারাদিনেও সে তার ঘর থেকে বের না হওয়ায় পরিবারের লোকজন তাকে বিকেলে ডাকাডাকি শুরু করেন। কিন্তু কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে স্বজনরা দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে দেখতে পান জানালার গ্রিলের সঙ্গে তোয়ালে পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছেন মিথিলা। রোববার বিকেলে শরীয়তপুর পৌরসভার উত্তর পালং গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

মিথিলা সেলিম সরদার ও নাজমা বেগম দম্পতির মেয়ে। তিনি শরীয়তপুর জেলা শহরের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সরকারি কলেজে পড়াশোনা করতেন।

পুলিশ মিথিলার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। মিথিলার স্বজন ও প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, প্রেমঘটিত কারণে তিনি আত্মহত্যা করতে পারেন।

পালং মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, উত্তর পালং এলাকা থেকে মিথিলা নামে এক তরুণীর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় তার পরিবার থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। অভিযোগের বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।